জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত পরীক্ষা ২৪ মে থেকে, ভর্তি কার্যক্রম ৮ জুন


জাগো প্রহরী :
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত হওয়া সব পর্যায়ের পরীক্ষার নতুন সময়সূচি ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ২৪ মে থেকে স্থগিত পরীক্ষাগুলো নেওয়া শুরু হবে। এ ছাড়া ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষের ভর্তির কার্যক্রম আগামী ৮ জুন থেকে শুরু হবে। আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব কথা বলা হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২০১৯ সালের ডিগ্রি পাস ও সার্টিফিকেট কোর্সের ২য় বর্ষের এবং ২০১৮ সালের মাস্টার্স শেষ পর্বের পরীক্ষাসহ অন্যান্য সব প্রফেশনাল কোর্সের স্থগিত পরীক্ষা ২৪ মে থেকে শুরু হবে। এ ছাড়া ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষের ভর্তির কার্যক্রম আগামী ৮ জুন থেকে শুরু হবে। শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। স্থগিত পরীক্ষার সংশোধিত সময়সূচি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে (www.nu.ac.bd) প্রকাশ করা হয়েছে।

সরকারি সিদ্ধান্তে গত সোমবার এসব পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করা হয়। তবে শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছেন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত হওয়া চলমান পরীক্ষাগুলো নেওয়ার দাবিতে আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর শাহবাগে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ওই শিক্ষার্থী শাহবাগে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য এ বিক্ষোভ করেন।

গত সোমবার শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি জানান, করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকা দেশের সরকারি বা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রেণিকক্ষে সরাসরি ক্লাস শুরু হবে ঈদুল ফিতরের পর আগামী ২৪ মে থেকে। তার এক সপ্তাহ আগে ১৭ মে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আবাসিক হল খুলে দেওয়া হবে। তবে হলে ওঠার আগেই আবাসিক শিক্ষার্থীদের করোনাভাইরাসের টিকা নিতে হবে। হল খোলার আগেই আবাসিক শিক্ষার্থী, আবাসিক হলের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের টিকার ব্যবস্থা করা হবে। তবে কারও যদি স্বাস্থ্যগত (মেডিকেল কারণে) কারণে টিকা না নেওয়ার মতো অবস্থা থাকে, তাহলে তাঁরা হলে থাকতে পারবেন। অন্যদিকে ২৪ মের আগে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় কোনো পরীক্ষা হবে না। তবে অনলাইনে ক্লাস চলবে। এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে মিল রেখে বিসিএস পরীক্ষার আবেদন ও পরীক্ষার তারিখ পেছানো হবে। করোনার কারণে বয়স অতিক্রম হয়ে যাওয়া কোনো পরীক্ষার্থী যেন এ ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্ত না হন, এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এরপরই সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) অধিভুক্ত সাত কলেজের পরীক্ষাগুলো স্থগিত করা হয়। এর প্রতিবাদে সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করেন। আন্দোলনের পর বুধবার সাত কলেজের অধ্যক্ষ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মো. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি অনলাইন বৈঠক করেন। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় (ঢাবি) অধিভুক্ত সাত কলেজের চলমান এবং ঘোষিত পরীক্ষাগুলো নেওয়া হবে। এরপর বুধবার বিকেলে আন্দোলন থেকে সরে আসেন শিক্ষার্থীরা। সাতটি বড় সরকারি কলেজের দুটি পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করা হয়। বুধবারের চতুর্থ বর্ষের পরীক্ষা আগামী ৭ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে। আর আজ বৃহস্পতিবারের তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৩ মার্চ।

জাগো প্রহরী/এফজে

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য