দাওয়াতুল হকের ইজতেমায় যা বললেন মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম


জাগো প্রহরী :
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মাদ ফয়জুল করীম দাওয়াতুল হকের ইজতেমায় বলেন, আমি বয়ান করার জন্য আসিনি। হুজুরের দোয়া নিতে এসেছি। আমাকে দাওয়াত দিতে হয় না। আমার যখন পিপাসা লাগে আমি হুজুরের কাছে আসি। হজরত আল্লামা মাহমুদুল হাসান আমাদের চরমোনাই গিয়েছিলেন, মাওলানা মাহফুজুল হকও গিয়েছিলেন, আমি থাকতে পারিনি। তাই কাজা কাফফারা দেয়ার জন্য আসছি।

আজ আমাদের ঐক্য জরুরি। তবে সমস্ত মসজিদ মাদরাসা ভেঙ্গে এক করে দেয়া সম্ভব নয়। তাই সব ভিন্ন থাকলেও আমাদের মন থাকবে এক। আমাদের আদর্শ থাকবে এক। আমাদের উদ্দেশ্য এক। আমারা একই মজলিসে থেকে উদ্দেশ্য ভিন্ন থাকলে আমরা এক নয় ভিন্ন। আর আমরা চাই যেখানেই থাকি, যদি আমাদের উদ্দেশ্য এক থাকে তাহলে আমরা এক। আমাদের ঐক্য এক। আমাদের আদর্শ এক। হজরত লুত আ. ও তার স্ত্রী একই বিছানায় ছিলেন, কিন্তু তাদের উদ্দেশ্য ভিন্ন ছিলো। তেমনই আমাদের উদ্দেশ্য এক থাকলে আমরা সব জাগায় এক। আমরা মসজিদে যেমন এক থাকি ঠিক বাইরেও আমরা এক থাকবো। আল্লাহ আমাদের সবাইকে এক ও নেক বানান। আমিন।

আজ শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) ফজরের পর আম বয়ানের মাধ্যমে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর জামিয়া দারুল উলুম মাদানিয়ায় এই ইজতেমা শুরু হয়। দিনব্যাপী এ ইসলাহী ইজতেমা চলবে।

ইসলাহী মাহফিলে আম বয়ান করেন মজলিসে দাওয়াতুল হক বাংলাদেশের আমির আল্লামা মাহমুদুল হাসান। বয়ানে তিনি বলেন, আল্লাহ তায়ালার অনেক নাম আছে। ৯৯টা প্রশিদ্ধ আল্লাহসহ ১০০টা। আল্লামা ফখররুদ্দিন রাজি রহ. তফসিরে কাবীরের মধ্যে বলেন, আল্লাহর ৫ হাজারের চেয়ে বেশি নাম আমি লিখেছি। এগুলোর ফজিলত বলে শেষ করা যাবে না।

‘আল্লাহর মূল নাম একটা। আল্লাহ। আল্লাহ শব্দে যা বুঝায় এটা কোন মানুষ উপলবব্ধি করতে পারে না। বুঝতে পারে না। এটা বুঝবে যখন আল্লাহ সাথে সাক্ষাৎ হবে। আল্লাহর সাথে যখন আমরা সাক্ষাৎ করি তখন যেন আল্লাহ হাসতে থাকে আমাদের দেখে। আমরাও যেন হাসতে হাসতে মুলাকাত করি।’

মজলিসে দাওয়াতুল হকের ইজতেমায় উপস্থিত থাকবেন- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান দুলাল। এছাড়াও হারদুয়ী হজরত শাহ আবরারুল হক রহ. এর খলিফা ও দেশবরেণ্য ওলামায়ে কেরাম উপস্থিত থাকবেন।

জাগো প্রহরী/এফজে

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য