আল্লামা শফীর মৃত্যু: বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি ছেলে ইউসুফের


জাগো প্রহরী :
হেফাজতে ইসলামীর সাবেক আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীকে সুকৌশলে নির্যাতনের মাধ্যমে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করে বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানিয়েছে হেফাজতে ইসলামের একাংশ ও তার পরিবারের সদস্যরা।

মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান তারা।

আল্লামা শাহ আহমেদ শফীর মৃত্যুর পর থেকেই তার পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করে আসছিলেন তাকে নির্যাতন করে মৃত্যু ত্বরান্বিত করা হয়েছে। একই অভিযোগ তুলে বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানিয়েছেন আল্লামা শাহ আহমদ শফীর বড় ছেলে ইউসুফ মাদানী।

তিনি বলেন, ইসলামের লেবাসধারী একটি মহল বাবুনগরীরা তাকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন আল্লামা আহমদ শফীর ছোট ছেলে মাওলানা আনাস মাদানী ও শ্যালক মাওলানা মাইনুদ্দিন। পরিবারের পক্ষ থেকে এ সময় চারটি দাবি তুলে ধরা হয় সরকারের কাছে।

দাবিগুলো হলো:

১. বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে আল্লামা শাহ আহমদ শফীর অস্বাভাবিক মৃত্যুর রহস্য উদ্ঘাটন করে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

২. পরিবারের পক্ষ থেকে দায়েরকৃত মামলা তদন্তপূর্বক অবিলম্বে প্রকৃত দোষীদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার করতে হবে।

৩. আল্লামা শাহ আহমদ শফীর পরিবারের সদস্যদের ও তার অনুসারীদের নিরাপত্তা বিধান করতে হবে যারা হুমকি দিচ্ছে তাদেরকে চিহ্নিত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে।

৪. আল্লামা শফীর রেখে যাওয়া সকল দ্বীনই ও সামাজিক অঙ্গনগুলো থেকে বিরোধীদের অপসারণ করতে হবে।

এসময় হেফাজতে ইসলামের একাংশের যুগ্ম মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ বলেন, আল্লামা শফীর মৃত্যুর পর তড়িঘড়ি করে যেভাবে কমিটি দিয়ে বাবুনগরীকে আমীর নির্বাচন করা হয়েছে তা অবৈধ এবং তারা হেফাজতের মূলধারা নয়।

সংবাদ সম্মেলনে তারা “হাটহাজারীতে জীবনের শেষ তিনদিন” শীর্ষক একটি বই তুলে দেন সাংবাদিকদের হাতে। যেখানে তারা উল্লেখ করেন দুর্বৃত্তরা অ্যাম্বুলেন্স আটকে রেখে অক্সিজেনের তার ছিঁড়ে ফেলায় আহমদ শফীর অবস্থা সংকটাপন্ন হয়।

জাগো প্রহরী/এফজে

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য