৩০ ডিসেম্বর জনগণের ভোটাধিকার হরণের দিন: পীর সাহেব চরমোনাই


জাগো প্রহরী :
সরকার জনগণের ভোটাধিকার হরণ করে জোর করে ক্ষমতায় টিকে আছে। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর এক প্রহসণ ও ভোট ডাকাতির নির্বাচনের মধ্য দিয়ে নিজেদের ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করেছে। জনগণের ভোটাধিকার হরণ, নাগরিক অধিকার ভুলুণ্ঠিত করে সরকার আজীবন ক্ষমতায় টিকের থাকার ফন্দি-ফিকির করছে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই।

পীর সাহেব চরমোনাই এক বিবৃতির মাধ্যমে জানান, পৌরসভা নির্বাচনের প্রথম ধাপে সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) সারাদেশে ২৪ টি পৌরসভা নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের নির্লিপ্ততা এবং প্রশাসনের প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় ক্ষমতাসীন দলের ব্যাপক অনিয়ম ও কারচুপি, ভোট ডাকাতি এবং ভোটারদের বাধাদানের মধ্য দিয়ে যে তাণ্ডব চালিয়েছে। দেশের নির্বাচন ব্যবস্থাকে পুরোপুরি ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে। দেশের জনগণের ঐক্যবদ্ধ গণ-আন্দোলন ছাড়া ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার বিকল্প রাস্তা খোলা নেই।

বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, সর্বত্র প্রশাসন নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি না করে বরং সরকারদলীয় সন্ত্রাসীদের প্রশ্রয় দিচ্ছে। নির্বাচন কমিশন যদি সুষ্ঠু নির্বাচন করতে না পারে তাহলে তাদেরকে দ্রুত দায়িত্ব ছেড়ে চলে যাওয়া উচিত।

জাগো প্রহরী/এফজে

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য