সিলেটে চরমোনাই পীরের মাহফিল ব্যনারে ছাত্রলীগের আগুন : নির্ধারিত প্রোগ্রাম নিয়ে শংকা


জাগো প্রহরী :
সিলেটে বিক্ষোভ মিছিল থেকে মুফতি সৈয়দ মো. রেজাউল করীম চরমোনাই পীরের মাহফিল উপলক্ষে টানানো একটি ব্যানারে আগুন দিয়েছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এছাড়া ব্যানার ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। রবিবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, সিলেট নগরীর চৌহাট্টাস্থ আলিয়া মাদরাসা মাঠে আগামী ১০ থেকে ১২ ডিসেম্বর তিন দিনব্যাপী ওয়াজ মাহফিলের আয়োজন করেছিল ‘বাংলাদেশ মুজাহিদিন কমিটি, সিলেট বিভাগ’। এ কমিটি মূলত ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের একটি প্লাটফরর্ম। এব্যাপারে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সিলেট মহানগর সহসভাপতি ডা: রিয়াজুল ইসলাম বলেন, গতকাল (শনিবার) স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাহফিলের কার্যক্রম বন্ধ রাখার অনুরোধ করা হয়। সেকারনে আজ (রোববার) সকাল থেকে প্রস্তুতি কাজ স্থগিত রাখা হয়েছে। তারা এ মাহফিল আয়োজনের অনুমতি নিয়েই প্রচার প্রচারনা সহ প্রস্তুতি শুরু করেছিলেন। তিনি বলেন, মাহফিলের আয়োজন নাও হতে পারে।

এদিকে, ওই মাহফিলের প্রধান অতিথি ছিলেন চরমোনাই পীর। মাহফিলকে স্বাগত জানিয়ে আয়োজকরা বিভিন্ন স্থানে তোরণ বসিয়েছেন; ব্যানার, ফেস্টুন ও পোস্টার লাগিয়েছেন। নগরীর চৌহাট্টা এলাকায়ও ব্যানারসহ একাধিক তোরণ বসানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে আজ সিলেটে বিক্ষোভ মিছিল করে আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন। নগরীর রেজিস্ট্রারি মাঠ থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিলটি নগরীর চৌহাট্টা এলাকায় আসার পর ছাত্রলীগের কর্মীরা চরমোনাই পরের মাহফিলের ওই তোরণের একটি ব্যানার টেনে নামিয়ে আগুন ধরিয়ে দেন। এছাড়া আরেকটি ব্যানার তোরণ টেনে ছিঁড়ে ফেলেন। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ সিলেট মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক হাফিজ মাওলানা মাহমুদুল হাসান বলেন, ‘ব্যানার ছিঁড়ে ফেলা ও আগুন দেওয়ার ঘটনায় আমরা পুলিশে অভিযোগ দাখিল করবো।’ নগরীর কোতোয়ালী থানার ওসি সেলিম মিঞা বলেন, একটি ব্যানারে আগুন দেয়া ঘটনার খবর পেয়েছেন, পুলিশ পৌছে সরিয়ে দিয়েছে তাদেরকে।

জাগো প্রহরী/এফআর

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য