নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম জনগণের নাগালে রাখতে সরকার ব্যর্থ : পীর সাহেব চরমোনাই


জাগো প্রহরী :
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, করোনায় দেশের সাধারণ মানুষ যখন বিপর্যস্ত। ঠিক সে সময় নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের আকশচুম্বি মূল্যবৃদ্ধি জনজীবনকে আরো দুর্বিষহ করে তুলবে।

তিনি বলেন, দুর্দশাগ্রস্থ গরিব-মধ্যবিত্তের জন্য রেশনব্যবস্থা চালু ও লাগামহীন দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। নারী-শিশু ধর্ষণকারীদের শরীয়াহ আইনে দ্রুত বিচার করতে হবে এবং দেশের সম্পদ লুটপাট ও দুর্নীতি বন্ধ করতে না পারলে দেশে চরম বিপর্যয় দেখা দিবে।

পীর সাহেব বলেন, করোনাভাইরাসে দেশের মানুষের জীবন-জীবিকা আজ বিপর্যস্থ। সংক্রমণ মোকাবিলায় ব্যর্থ সরকার জনগণকে ভাগ্যের হাতে ছেড়ে দিয়েছে, যারা মরার মরবে ও যারা বাঁচার বাঁচবে। করোনাজনিত অর্থনৈতিক মন্দার অজুহাতে ছাঁটাই-বেতন কর্তন চলছে, বেকারত্ব ও দারিদ্র্য বাড়ছে। প্রবাসীরা অনেকে কাজ হারিয়ে দেশে ফিরে আসছেন। যা একটি দেশের জন্য অশনিসংকেত।

আজ এক বিবৃতিতে পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, লাগামহীন দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি, ভুতুড়ে বিদ্যুৎবিলের বোঝায় মানুষ দিশাহারা। অর্থনৈতিক সংকটে ক্ষতিগ্রস্থ শ্রমজীবী মানুষ-কৃষক-নিম্নবিত্তকে সহায়তা দেয়ার পরিবর্তে সরকার প্রধানত শিল্পপতি-ব্যবসায়ীদের আর্থিক প্রণোদনা দিচ্ছে। এই মহামারির সময়েও যে লাগামহীন দুর্নীতি-প্রতারণা ও জালিয়াতি হতে পারে, সেই নজির স্থাপিত হয়েছে বাংলাদেশে। 

পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, হতাশাগ্রস্থ মানুষের মুক্তির একমাত্র ঠিকানা ইসলাম। তিনি সকলকে মুক্তির মোহনা ইসলামের ছায়াতলে ফিরে আসার আহ্বান জানান।

জাগো প্রহরী/গালিব

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য