মর্গে রাখা মৃত নারীদের ধর্ষণের অপরাধে এক হিন্দু যুবক গ্রেফতার


জাগো প্রহরী :
মর্গে রাখা মৃত নারীদের ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ মর্গে সহায়তাকারী হিন্দু যুবক মুন্না ভগত (২০) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি।

সিআইডির পরিদর্শক জেহাদ হোসেন বাদী হয়ে রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানায় বৃহস্পতিবার রাতে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে শেরেবাংলা নগর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, হিন্দু যুবক মুন্না ভগত সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ মর্গের চাকরিজীবী ছিলেন না। তিনি বহিরাগত হিসেবে মর্গে দায়িত্ব পালনকারীদের সহায়তা করতেন।

তার বাড়ি রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ এলাকায়। বেশ কিছু দিন ধরে মর্গ থেকে মৃত নারীদের ধর্ষণ করার অভিযোগ আসে। বিষয়টি নিয়ে সিআইডি তদন্তে নামে।

তিনি আরো বলেন, সিআইডি তদন্ত করতে গিয়ে দেখে সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ মর্গের ডোম জতন কুমার লালের সহযোগী হিসেবে মুন্না ভগত কাজ করতেন। মুন্না মর্গের পাশেই একটি কক্ষে ঘুমাতেন। জতন মুন্নার সম্পর্কে মামা হয়। সেই হিসাবে মামা-ভাগ্নে একত্রে মর্গে কাজ করে।

সম্প্রতি এক মৃত নারীর পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশের কাছে অভিযোগ করা হয়। ওই অভিযোগের সূত্র ধরে সিআইডি তদন্ত করে হিন্দু যুবক মুন্না ভগতকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আটক করে শেরেবাংলা নগর থানা পুলিশে কাছে হস্তান্তর করে। পরে সিআইডি তার বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে। ওই মামলায় মুন্না ভগতকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

জাগো প্রহরী/এফজে

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য