শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও রাসূল সা. এর সম্মান রক্ষা করবো: মুহিব্বুল হক গাছবাড়ী


জাগো প্রহরী :
ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় পৃষ্টপোষকতায় রাসূল সা.-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের প্রতিবাদে শায়খুল হাদিস আল্লামা মুহিব্বুল হক গাছবাড়ীর আহ্বানে সিলেটে অনুষ্ঠিত হয়েছে স্মরণকালের সর্ববৃহৎ বিক্ষোভ সমাবেশ।

বুধবার (৪ নভেম্বর) সকাল থেকে জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে শহরে আসতে থাকে তৌহিদি জনতার ঢল। বাদ জোহর সমাবেশ শুরুর আগেই লোকে লোকারণ্য হয়ে ওঠে সিলেটে ঐতিহাসিক কোর্ট পয়েন্ট, সিটি পয়েন্ট, সুরমা পয়েন্ট, জিন্দাবাজারসহ আশপাশের এলাকাসমূহ।

মাওলানা আবুল হাসান ফয়সল, মাওলানা জুনাইদ কিয়ামপুরী, মুফতি রশিদ আহমদ, মাওলানা আহমদ সগীর ও মাওলানা নিয়ামত উল্লাহর যৌথ পরিচালনায় সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন উলামা পরিষদ বাংলাদেশের সভাপতি করেন শায়খুল হাদিস আল্লামা মুহিব্বুল হক গাছবাড়ী।

শায়খ গাছবাড়ী সভাপতির বক্তব্যে বলেন, ‘রাসূল সা. এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করা হবে আর আমরা বসে থাকবো তা কখনো হতে পারে না, প্রয়োজনে আমরা আমাদের শরীরের শেষ রক্তবিন্দু বিসর্জন দিয়ে হলেও রাসূল সা.-এর সম্মান সমুন্নত রাখার সর্বপ্রকার চেষ্টা চালিয়ে যাবো।’

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, শায়খুল হাদিস আলীম উদ্দিন দুর্লভপুরী, শায়খুল হাদিস  ‍নূরুল ইসলাম খান সুনামগঞ্জি, নাজিমে এদারা মাওলানা আব্দুল বছির সুনামগঞ্জি, সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, মাওলানা শেখ মহসিন আহমদ কৌড়িয়া, মাওলানা শায়েখ আব্দুল গফফার রায়পুরী, মাওলানা শামসুদ্দিন দুর্লভপুরী, মাওলানা মুফতি ওলিউর রহমান দারুস সালাম, মাওলানা রেজাউল করিম জালালী, মাওলানা মুছলেহ উদ্দিন রাজু, মাওলানা মোস্তাক আহমদ খান, মাওলানা হেলাল আহমদ হরিপুরী, মাওলানা ইউসুফ শামপুরী, মাওলানা আব্দুস সোবহান কাজিরবাজার,মাওলানা মুফতি রশীদ আহমদ মকবুল, মাওলানা মুফতি আবুল হাসান লামারগ্রাম, মাওলানা আব্দুল আজিজ, জামেয়া ফারুক্বিয়্যাহ,মাওলানা আব্দুল জব্বার লামনিগ্রাম, মাওলানা আব্দুস সালাম বাগরখালী, মাওলানা সৈয়দ শামীম আহমদ, মাওলানা আব্দুল মালিক মোবারকপুরী, মাওলানা মাসুক আহমদ সালামী, মাওলানা মুহিবুর রহমান, মাওলানা নুরুল হক বিশ্বনাথী, মাওলানা আব্দুল মুছব্বির জকিগঞ্জি, মাওলানা হারুনুর রশীদ আল আজাদ, মাওলানা মুহিব্বুর রহমান মিঠিপুরী, মাওলানা সাইফুল্লাহ নয়াসড়ক, মাওলানা ফারুক আহমদ শাহবাগী, মাওলানা শরীফ আহমদ শাহান, মাওলানা ইমদাদুল্লাহ কাতিয়া, মাওলানা আবুল হোসাইন চতুলী, মাওলানা গাজী রহমত উল্লাহ, মাওলানা ইকবাল হোসাইন, মাওলানা আব্দুল মালিক চৌধুরী, মাওলানা মাহমুদুল হাসান, মাওলানা জাহিদ উদ্দিন চৌধুরী, আলহাজ্ব মাওলানা এমরান আলম, মাওলানা জামীলুল হক, মাওলানা বুরহান উদ্দিন, মাওলানা শেখ নাসির উদ্দিন, এডভোকেট মোহাম্মদ আলী, মাওলানা নজরুল ইসলাম তোয়াকুলি ও মাওলানা হারুনুর রশীদ চতুলি,মাওলানা আব্দুল কাইয়ূম হাজীপুরী, মুফতী জিল্লুর রহমান, হাফিজ মাওলানা আতিকুর রহমান, মুফতী মুহাম্মাদ মাহবুবুল হক, মুফতী সৈয়দ নাছির উদ্দিন আহমদ, মাওলানা জিয়াউর রহমান, মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান প্রমুখ।

সমাবেশ থেকে ৬ দফা প্রস্তাবনা পেশ করেন শায়খুল হাদিস মুহিব্বুল হক গাছবাড়ি। প্রস্তাবনাসমূহ হচ্ছে—

১. ফ্রান্স রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় মহানবী সা.-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করায় ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁকে মুসলিম বিশ্বের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে। ২. বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে ফ্রান্সে মহানবী সা.-এর ব্যঙ্গচিত্রের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব পাশ করতে হবে। ৩. ফ্রান্সের সাথে সকল কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে ফ্রান্সের দূতাবাস প্রত্যাহার করতে হবে। ফ্রান্সের সকল পণ্য আমদানি বন্ধ করতে হবে। ৪. অবিলম্বে বাংলাদেশে নিযুক্ত ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে তলব করে বাংলাদেশ সরকারের অবস্থান পরিষ্কার করতে হবে।

৫. বাংলাদেশে নাস্তিক-মুরতাদ কর্তৃক রাসূল সা.-সম্পর্কে কটুক্তির বিরুদ্ধে মৃত্যুদণ্ডের আইন পাশ করতে হবে। ৬. দেশের নবীপ্রেমিক সকল নাগরিককে ফ্রান্সের সকল পণ্য ক্রয় ও ব্যবহার বর্জন করে রাসূল সা.-এর প্রতি আন্তরিক ভালোবাসার দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে। সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল শহরের বড় বড় সড়ক প্রদক্ষিণ করে আম্বরখানা পয়েন্টে গিয়ে মোনাজাতের মাধ্যমে সমাপ্তি হয়।

জাগো প্রহরী/এফজে

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য