নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের প্রতিবাদে রাজধানীতে খেলাফত আন্দোলনের বিক্ষোভ


জাগো প্রহরী : নোয়াখালী,সিলেট হবিগঞ্জ, খাগড়াছড়ি, পিরোজপুর, লক্ষীপুর, গাজিপুর, নারায়ানগঞ্জ, রাজশাহীসহ সারাদেশে নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন। আজ মঙ্গলবার (০৬ অক্টোবর) বিকালে রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরে এ বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীরে শরীয়ত আল্লামা শাহ আতাউল্লাহ হাফেজ্জী অভিযুক্ত আসামিদের দ্রুত বিচার কার্যকর করার দাবি জানিয়ে বলেন, ধর্ষকদের দ্রুত কঠিন বিচার না হওয়ার কারণে নতুনভাবে সারাদেশে প্রতিদিন নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের ঘটনা বেড়েই চলেছে।

তিনি বলেন, আজ স্কুল-কলেজ, রাস্তা-ঘাট এমনকি নিজ ঘরেও মা-বোনেরা নিজেদের ইজ্জত-আবরুর নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। দেশের মহিলা সরকার প্রধান নারীদের ক্ষমতায়নের কথা বললেও নারীজাতির ইজ্জতের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। তিনি অবিলম্বে দল-মতের ঊর্ধ্বে গিয়ে অভিযুক্ত ধর্ষক ও তাদের পৃষ্টপোষকদের আসামির কাঠ গড়ায় দাড় করিয়ে কুরআনের আইনে দ্রুত বিচার কার্যকর করার দাবি জানান।

বিক্ষোভ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন, দলের মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী, নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি সুলতান মহিউদ্দীন, দপ্তর সম্পাদক মাওলানা সানাউল্লাহ, মাওলানা সাইফুল ইসলাম সুনামগঞ্জী, মাওলানা সাজেদুর রহমান, মুফতি ইলিয়াছ মাদারীপুরী ও মুফতি আফম আকরাম হুসাইন ও মুফতি আবুল হাসান কাসেমী প্রমুখ।

মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী বলেন, অধিকাংশ খুন, ধর্ষণ ও নারী নির্যতনের সাথে ক্ষমতাসীন দলের অঙ্গসংগঠনের চরিত্রহীন নেতা কর্মীরা জড়িত। অপরাধীদের কেউ কেউ গ্রেফতার হলেও দলীয় নেতাদের সুপারিশে ছাড়া পেয়ে অপরাধীরা আরো বেপরোয়া হয়ে উঠছে।

মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী বলেন, নোয়খালী বেগমগঞ্জ এলাকার নিরীহ এক গৃহবধুকে বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানি ও পাশবিক নির্যাতনের ঘটনা জাহিলী যুগের সকল বর্বরতাকেও হার মানিয়েছে। যুবক-যুবতীদের মাদকাসক্তি, প্রযুক্তির অপব্যবহার এবং পর্নোগ্রাফির সহজলভ্যতা ধর্ষণের অন্যতম কারন।

মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন বলেন, ধর্ষণ বন্ধে কুরআনের আইনের বিকল্প নেই। তিনি নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ বন্ধে শরিয়াহ বোর্ড কায়েম করে অপরাধে জড়িতদের কুরআনের আইনে দ্রুত বিচার কার্যকর করার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান।

মাওলানা সাইফুল ইসলাম সুনামগঞ্জী বলেন, ধর্ষকরা আজ বাংলাদেশকে নরকরাজ্যে পরিণত করেছে। ধর্ষকরা সমাজের ভাইরাস, এরা করোনা ভাইরাসথেকেও জঘন্য। ইসলামী শিক্ষা ধর্মীয় মূল্যবোধ ও সরকারের কঠোর নজরধারীর অভাবে অহরহ ধর্ষনের ঘঠনা ঘটছে।

জাগো প্রহরী/এফআর

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য