সরকারি খরচে ধর্মীয় শিক্ষা নয়: তাই আসামের সব মাদরাসা বন্ধের সিদ্ধান্ত বিজেপির


জাগো প্রহরী : ভারতের বিজেপিশাসিত আসামে সরকারি মাদ্রাসা বন্ধের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে রাজ্য সরকার। গত বুধবার রাজ্যের শিক্ষা বিভাগের উপসচিব এস এন দাস শিক্ষা বিভাগের ডিরেক্টরের কাছে চিঠি দিয়ে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, আসামের শিক্ষামন্ত্রী ও বিজেপি নেতা হিমন্তবিশ্ব শর্মা বলেন, রাজ্যের সরকারি মাদ্রাসাগুলো বন্ধ হবেই। তাঁর মতে ‘রাজ্য বিধানসভাতেও বিষয়টি তোলা হয়েছে। সরকারের অবস্থান স্পষ্ট, সরকারি খরচে ধর্মীয় শিক্ষা নয়। ব্যক্তিগত খরচে মাদ্রাসা চলতেই পারে, এটা সরকারের দেখার বিষয় হতে পারে না। কিন্তু ধর্মগ্রন্থের পাঠ নেওয়া হবে সরকারের টাকায়, এই পরম্পরা আমরা বন্ধ করবই।’ 
 
আগামী নভেম্বরে ওই বিষয়ে সরকারি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হবে বলে শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন। যদিও আগেভাগেই এ ব্যাপারে মধ্য শিক্ষা বিভাগের তৎপরতা শুরু হয়েছে। তবে ক্ষমতায় এলে এ সিদ্ধান্ত বাতিল করে সব মাদ্রাসা চালু করার ঘোষণা দিয়েছেন রাজ্যে কংগ্রেসের বড় শরিক অল ইন্ডিয়া ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (এআইইউডিএফ)।

আসামের শিক্ষা মন্ত্রণালয় সরকারি মাদরাসাগুলো বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ জন্য ১৪৮ জন চুক্তিভিত্তিক মাদ্রাসা শিক্ষককে মধ্য শিক্ষার অধীনস্থ সাধারণ স্কুলগুলোতে বদলি করা হবে।

এ প্রসঙ্গে এআইইউডিএফ প্রধান মাওলানা বদরউদ্দিন আজমল বৃহস্পতিবার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেছেন, সরকার এখন যে সিদ্ধান্তই নিক, ক্ষমতায় এলে তাঁরা সব সরকারি মাদরাসা খুলে দেবেন। মাদরাসা শিক্ষাব্যবস্থা শতাব্দী প্রাচীন বলে মন্তব্য করে তাঁরা সরকারি সিদ্ধান্তকে আদালতে চ্যালেঞ্জ জানাতে প্রস্তুত বলেও মন্তব্য করেছেন। এতেও কাজ না হলে ক্ষমতায় এলেই ক্যাবিনেটে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে সব সরকারি মাদ্রাসা খুলে দেওয়া হবে বলেন আজমল।

জাগো প্রহরী/এফআর



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ