ইউএনও’র বাবা ওমর আলীর কোমরের নিচের অংশ অনুভূতিহীন হয়ে পড়েছে


জাগো প্রহরী : ঘোড়াঘাটের ইউএনও ওয়াহিদা খানমের বাবা মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী শেখের (৬৫) কোমরের নিচের অংশ অনুভূতিহীন হয়ে পড়েছে। তবে মাথায় আঘাতের স্থান অনেকটা ভাল হয়েছে। কথা বলতে ও খেতে পারলেও তিনি হাঁটাচলা করতে পারছেন না।   

রবিবার রমেক হাসপাতালের পরিচালক ডা. ফরিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গত বুধবার দিনাজুরের ঘোড়াঘাটের সরকারি বাসায় দুর্বৃত্তদের হামলায় ইউএনও ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা আহত হন। বৃহস্পতিবার থেকে তিনি রমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।  
হাসপাতালের পরিচালক জানান, ওমর আলী শেখ এমনিতেই বয়স্ক মানুষ। তার ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ ছিল।

ঘটনার রাতে তিনি ঘাড়ে আঘাত পান। এতে স্পাইনাল কর্ডে গুরুতর আঘাত লাগে তার। সাধারণত এ ধরনের জটিলতায় চার হাত-পা  অবশ হয়ে যায়। এক্ষেত্রে তার দুই হাত সচল থাকলেও নাভির নিচ থেকে পুরো নিচের অংশ অনুভূতিহীন হয়ে গেছে। সাধারণত এ ধরনের সমস্যা সেরে উঠতে সময় লাগে।
আপাতত তার অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন না হলেও দীর্ঘমেয়াদি চিকিৎসা দিতে হবে তাকে।  

ওমর আলী শেখের ছেলে শেখ ফরিদ উদ্দিন বলেন, হাসপাতালে ভর্তির পর থেকে আমার বাবার এ সমস্যা দেখা দেয়। বিষয়টি রংপুর জেলা প্রশাসককে জানানো হয়েছে। আপাতত ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি। এখানকার পরীক্ষা-নিরীক্ষার রিপোর্ট ঢাকায় পাঠানো হবে। সেখানকার চিকৎসকরা রিপোর্ট দেখে ঢাকায় নিয়ে যেতে বললে তারপর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

জাগো প্রহরী/এফআর

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ