গণপরিবহনের বর্ধিত ভাড়া প্রত্যাহারের দাবিতে যুব আন্দোলনের মিছিল প্রতিবাদ



জাগো প্রহরী : ইসলামী যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি কে এম আতিকুর রহমান বলেন, করোনার খোড়া অজুহাতে গণপরিবাহনের ভাড়া ৬০% বর্ধিত করে সরকার আবারো প্রমান করলো এই সরকার জনগণের সরকার নয় । তারা সুধু একটি গোষ্ঠির সার্থে ক্ষমতার মসনদে বসে আছে। করোনায় সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে গণপরিবহনের ভাড়া ৬০% বৃদ্ধি করা হয়েছে। কিন্তু বাস্তবে সেই সামাজিক দুরুত্বের বালাই নেই। তবে বর্ধিত ভাড়া ঠিকই আছে। এ নিয়ে সরকার কোন কথা বলার সাহস রাখে না। তার মানে এই সরকার পরিবহন সেক্টরের কিছু সন্ত্রাসীদের কাঁধে ভর করে টিকে আছে। তাই তাদের স্বার্থের বিপক্ষে যায় এমন কিছু সরকার করবে না।

আজ মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সকাল ১১টায় গণপরিবহনের ৬০% বর্ধিত ভাড়া প্রত্যাহার করার দাবিতে ইসলামী যুব আন্দোলন কেন্দ্রীয় কমিটির আয়োজিত মানববন্ধনের সভাপতির বক্তব্যে তিনি উপর্যুক্ত কথা বলেন।

কেন্দ্রীয় সভাপতি আরো বলেন, করোনা সংকটের শুরু থেকেই প্রতিটি বিষয়ে সরকার চরম ব্যর্থ হয়ে আসছে। তারপরও সরকারের কিছু মন্ত্রীরা অনবরত অযাচিত কথা বলে আসছে। জাতির এ সংকটকালে অযাচিত কথা বলে দেশের মানুষের সাথে তামাশা করবেন না।

প্রোগ্রামে বক্তারা স্বাস্হ্যমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি করে বলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের মতো একটি গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রনালয়ে দায়িত্বে থাকার মতো কোন যোগ্যতাই তার নেই। তাই অনতিবিলম্বে পদত্যাগ করুন।

প্রোগ্রাম শেষে উত্তেজিত জনতা প্রেসক্লাবের সামনের রাস্তায় বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।

প্রোগ্রামে অন্যান্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন, ইসলামী যুব আন্দোলন-এর সেক্রেটারি জেনারেল, মাওলানা নেছার উদ্দিন, জয়েন্ট সেক্রেটারি জেনারেল, প্রকৌশলী আতিকুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক, মানছুর আহমাদ সাকী, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক, শেখ মুহাম্মাদ নূর-উন-নবী, দফতর সম্পাদক, মুহাম্মাদ মাহবুব আলম, প্রচার সম্পাদক, মুহাম্মাদ ইলিয়াস হাসান সমাজ কল্যাণ সম্পাদক হাফেজ মাওলানা জহিরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক (কুমিল্লা বিভাগ) মুফতি শরিফুল ইসলামসহ নগর নেতৃবৃন্দ ৷

জাগো প্রহরী/এফআর

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য