বর্ধিত বাসভাড়া প্রত্যাহার দাবি যাত্রী কল্যাণ সমিতির


জাগো প্রহরী : করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মানার শর্তে গণপরিবহণে ৬০% ভাড়া বাড়ানো হয়। কিন্তু গণপরিবহণ মালিক এবং শ্রমিকরা স্বাস্থ্যবিধি তো মানেনই না বরং কয়েকগুণ বেশি অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে সাধারণ মানুষ। এর পরিপ্রেক্ষিতে দেশব্যাপী চলমান গণপরিবহনে হাতাহাতি, মারামারিসহ ভাড়া নৈরাজ্য ও যাত্রী হয়রানি বন্ধে করোনাকালে বাসের ৬০ শতাংশ বর্ধিত ভাড়া অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতি। রোববার (২৩ আগস্ট) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সংগঠনের মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী এ দাবি জানান।


বিবৃতিতে তিনি বলেন, করোনা সংকটে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণপূর্বক অর্ধেক যাত্রী নিয়ে গণপরিবহন চালানোর জন্য বাসের ভাড়া একলাফে ৬০ শতাংশ বাড়ানো হলেও এখন দেশের কোনো গণপরিবহনে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। বর্ধিত ভাড়া নিয়ে সেই পুরনো কায়দায় গাদাগাদি করে যাত্রী বহন করা হচ্ছে। এতে করোনা সংকটে কর্মহীন ও আয় কমে যাওয়া দেশের সাধারণ মানুষের যাতায়াত দুর্বিসহ হয়ে উঠেছে। এতে করে সারাদেশে প্রায় প্রতিটি রুটে চলাচলকারী গণপরিবহনে যাত্রী-শ্রমিক বশচা (গ্যাঞ্জাম), হাতাহাতি, মারামারি চলছে।

জাগো প্রহরী/এফআর

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য