মিটার না দেখে আর কখনোই বিদ্যুৎ বিল নয়: ডেসকো এমডি


জাগো প্রহরী : অতিরিক্ত বিলের ভোগান্তি থেকে গ্রাহককে রেহাই দিতে মিটার না দেখে আর বিদ্যুৎ বিল করা হবে না বলে জানিয়েছেন ঢাকা ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানির (ডেসকো) ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাওসার আমির আলী। গ্রাহকদের সাম্প্রতিক ভোগান্তির জন্য তিনি দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

সোমবার (৬ জুলাই) সন্ধ্যায় ডেসকোর ভার্চুুয়াল তৃতীয় গণশুনানিতে তিনি এ মন্তব্য করেন। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা থেকে সোয়া নয়টা পর্যন্ত চলে গণশুনানী। ডেসকোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাওসার আমির আলী গণশুনানীতে গ্রাহকদের প্রশ্নের উত্তর দেন।

গণশুনানিতে রাজধানীর দক্ষিণখান এলাকার গ্রাহক মাজদার হোসেন জোনতে চান, কেন হঠাৎ করেই এত বিল এসেছে। মিরপুরের গ্রাহক শুক্কুর আলী অভিযোগ করেন, তার স্বাভাবিক বিল আসে মাসে গড়ে ৫০০ টাকা। মে মাসে তার বিলে এসেছে তিন হাজার টাকা। এসব অভিযোগের জবাবে ডেসকোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, মার্চ মাসের বিলের সঙ্গে ২০% ইউনিট যোগ করে বিল দিয়েছিলাম। ফলে অনেকের বিল বেশি চলে এসেছে। অনেকে বাসায় ছিলেন না, তাদের বিল বেশি আসে। তাদের ক্ষেত্রে আমরা পরের মাসে বিল সমন্বয় করে দিয়েছি। এখনও যারা অভিযোগ নিয়ে আসছেন, আমরা সমাধান করছি।

আমীর আলী বলেন, ‘অতিরিক্ত বিদ্যুৎ বিলের ক্ষেত্রে অন্য বিতরণ কোম্পানিগুলোর তুলনায় আমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ কম। এপ্রিল ও মে মাসে বেশিরভাগ বিল মিটার দেখে করা হয়েছে। এক্ষেত্রে খুব অভিযোগ পেয়েছি। বিশেষ করে ৬০০ ইউনিটের ওপরের গ্রাহকের অভিযোগ এসছে।  এগুলো দ্রুত সমাধান করা হয়েছে।’ তিনি বলেন, যেসব বিল নিয়ে অভিযোগ ছিলো এমন ৪৪ কোটি টাকার বিল সংশোধন করে দেওয়া হয়েছে।

ভূতুড়ে বিলের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তির বিষয়ে তিনি বলেন, অতিরিক্ত বিল নেওয়ার অপরাধে চার জন মিটার রিডারকে বরখাস্ত করা হয়েছে। সাত জন মিটার রিডার এবং একজন ডাটা এন্ট্রি অপারেটরকে শোকজ করা হয়েছে।

ডেসকো এমডি বলেন, আগামী দুই বছরের মধ্যে অধিকাংশ গ্রাহকদের বাসায় প্রিপেইড মিটার দেওয়া হবে। বড় বা শিল্প গ্রাহকদের আঙ্গিনায় ডিজিটাল মিটার বসানো হবে। যা অফিসে বসেই নিয়ন্ত্রণ করা বা বিল রিডিং সংগ্রহ করা যাবে।

জাগো প্রহরী/গালিব

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য