করোনাকালে পাট শ্রমিক ছাঁটাইয়ের সরকারি সিদ্ধান্ত অমানবিক ও আত্নঘাতী : ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন



জাগো প্রহরী : ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মাদ আশরাফ আলী আকন ও সেক্রেটারি জেনারেল হাফেজ মাওলানা ছিদ্দিকুর রহমান করোনা  পরিস্হিতিতে পাটকল শ্রমিকদের গোল্ডেন হ্যান্ডশেক এর নামে সরকারের নেয়া সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে বলেছেন, সরকারের এই সিদ্ধান্ত মরার উপর খড়ার ঘায়ের শামিল।

ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের নেতৃদ্বয় বলেন, পাটকল শ্রমিকদের ছাঁটাই করার সরকারি সিদ্ধান্তের কারণে এর সাথে সংশ্লিষ্ট দেশের অনেক মানুষ সঙ্কটে পড়বে।
 
মঙ্গলবার ( ৩০ জুন ) গণমাধ্যমে প্রেরিত এক যৌথ বিবৃতিতে তারা উপরোক্ত কথা বলেন।

ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন-এর শীর্ষ দুই নেতা বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর হাতে জমি আছে অনেক। রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্প অচল করে বন্ধ করার পেছনে সরকার ঘনিষ্ঠ প্রভাবশালীদের মধ্যে এই জমি বিতরণের সম্পর্ক আছে বলে আমরা মনে করি।

বিবৃতিতে বলা হয়, গোল্ডেন হ্যান্ডশেকের জন্য সরকার ৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। অথচ এর অনেক কম টাকা দিয়ে এই কারখানাগুলোর উৎপাদনশীলতা বাড়ানো ও তাদেরকে লাভজনক করা সম্ভব ছিল। আর শ্রমিকদের সকল পাওনা পরিশোধের প্রতিশ্রুতি অতীতের অসংখ্য প্রতারণার কারণে কতটা বাস্তবায়ন হবে তা নিয়ে আমরা সন্দিহান।

নেতৃবৃন্দ বলেন, সারাদেশে পাটকলের সঙ্গে শুধু শ্রমিকরাই নন, দেশের প্রায় তিন কোটি মানুষের রুটিরুজি এর সাথে জড়িত। পাটকল বন্ধ করলে তাঁদের পরিবার নিয়ে পথে বসতে হবে। করোনাকালে যখন পরিবেশবান্ধব শিল্প প্রতিষ্ঠার তাগিদ বাড়ছে তখন সরকারের এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হবে দেশের মানুষের জীবন জীবিকার জন্য আত্মঘাতী। এ সিদ্ধান্ত পরিহার করে শ্রমজীবি মানুষের জীবন জীবিকার স্বার্থে দ্রুত পাটকলগুলো চালু করার আহ্বান জানান।

জাগো প্রহরী/গালিব


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য