অ্যাম্বুল্যান্সে তুলতে গিয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু, আধা ঘণ্টা পড়ে রইল দেহ!


জাগো প্রহরী : করোনাকালে চূড়ান্ত অমানবিক দৃশ্যের সাক্ষী থাকল ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বনগাঁ হাসপাতাল। সেখান থেকে ট্রান্সফার করা এক রোগীর মৃত্যু হলো অ্যাম্বুল্যান্সে ওঠার আগেই পড়ে গিয়ে।  

অভিযোগ, করোনা সন্দেহে সাহায্য করতে এগিয়ে এলো না কেউ। ওভাবেই হাসপাতালের সামনে ৩০ মিনিট পড়ে থাকল বৃদ্ধের মৃতদেহ।

জানা গেছে, শনিবার বিকেল ৫টার দিকে বনগাঁ এলাকার ব্যবসায়ী মাধব নারায়ণ দত্তকে শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে বনগাঁ মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। প্রাথমিক পরীক্ষার পরে করোনা সাসপেক্টেড ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয় তাকে। কিন্তু কিছুক্ষণ পরে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে রাতেই কলকাতার কোনো হাসপাতালে রেফার করা হয় তাকে।

অভিযোগ, অসুস্থ মাধববাবুকে অ্যাম্বুল্যান্সে তোলার জন্য তার স্ত্রী আলপনা দত্ত হাসপাতাল থেকে একাই বের করে আনেন।

কারণ করোনা সন্দেহে কেউ কাছে ঘেঁষছিল না। এরপরেই মাধববাবু মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তার পরেও তাদের সাহায্য করতে কেউ এগিয়ে আসেননি। হাসপাতালের সামনেই পড়ে থাকে দেহ। অনেক সময় পরে এক চিকিৎসক এসে মাধববাবুকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

মৃতের স্ত্রী আলপনা দত্ত জানান, স্বামীকে অ্যাম্বুল্যান্সে তোলার সময় কেউ সাহায্য না করার কারণেই তিনি একাই অ্যাম্বুল্যান্সে তোলার চেষ্টা করছিলেন মাধববাবুকে। তখনই পড়ে যান মাধববাবু এবং মৃত্যু হয় তার। সূত্র : দ্য ওয়াল।

জাগো প্রহরী/এফআর

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য