লকডাউন রাজাবাজারে করোনা আক্রান্ত কমার পরিবর্তে বাড়ছে


জাগো প্রহরী : রাজধানীর পূর্ব রাজাবাজার লকডাউনের পর করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা কমার পরিবর্তে বরং বেড়েছে। সংক্রমণ রোধে ঘনত্ব বিবেচনায় পরীক্ষামূলক এলাকাটি লকডাউনের পর গত নয়দিনে আক্রান্ত হন ৩৩ জন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, লকডাউন সঠিকভাবে কার্যকরে গাফিলতির কারণেই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় পরীক্ষামূলকভাবে নয় দিন আগে লকডাউন করা হয় রাজধানীর পূর্ব রাজাবাজার। কিন্তু যে উদ্দেশ্যে লকডাউন, সেই সংক্রমণ বেড়েই চলেছে এলাকায়।

লকডাউনের আগে পূর্ব রাজাবাজার এলাকায় কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৩৯ জন। এরপর গত ৯ দিনেই আক্রান্ত হয়েছে ৩৩ জন। এতে উদ্বিগ্ন এলাকাবাসী।

এলাকাবাসী জানায়, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর গাফিলতির কারণে এখানে লকডাউন মানা হচ্ছে না। ঢিলেঢালা লকডাউনের কারণে এখানে করোনা বাড়ছে।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, লকডাউনের উদ্যেশ্য সঠিকভাবে বাস্তবায়ন না হলে কোনভাবেই আক্রান্তের সংখ্যা কমানো সম্ভব নয়।

বিএসএমএমইউ’র সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ডা. নজরুল ইসলাম জানান, লকডাউনের এলাকার সমগ্র গতিবিধি নজরে আনতে হবে। করোনায় শনাক্তদের চিহ্নিত করে আলাদা রাখতে হবে। না হলে লকডাউনের উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন সম্ভব না। 

এদিকে আইইডিসিআর বলছে, যেহেতু পরীক্ষামূলকভাবে লকডাউন করা হয়েছে। এর সুফল পেতে ১৪ থেকে ২১ দিন সময় লাগবে।

প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. এ এস এম আলমগীর জানান, লকডাউনের সুফল পেতে ১৪ থেকে ২১ দিন সময় লাগবে।

সম্প্রতি রাজধানীর ৪৫টি এলাকা করোনার সর্বোচ্চ ঝুঁকি হিসেবে রেড জোন চিহ্নিত করা হয়েছে।

জাগো প্রহরী/গালিব

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ