নিজেদেরকে এবার স্বাধীন রাষ্ট্র ঘোষণা দিতে যাচ্ছে ফিলিস্তিন


জাগো প্রহরী : ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা দেয়ার অঙ্গীকার করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শতেয়াহ। তিনি বলেন, ১৯৬৭ সালের সীমান্ত অনুযায়ী ফিলিস্তিনকে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র ঘোষণা করা হবে- যদি ইসরায়েল পশ্চিম তীরে এক-তৃতীয়াংশ ভূখণ্ড দখলের পরিকল্পনা থেকে সরে না আসে।

মোহাম্মদ শতেয়াহ বলেন, যদি ১ জুলাই ইসরায়েল ভূখণ্ড দখলের পদক্ষেপ নেয় তাহলে আমরা ফিলিস্তিনের অন্তর্বর্তীকালীন সরকার একটি স্বাধীন রাষ্ট্র ঘোষণা করবো। সেখান থেকে আমরা পরবর্তী পদক্ষেপের দিকে অগ্রসর হব।

সম্প্রতি নেতানিয়াহুর সরকার ঘোষণা দিয়েছে, আগামী ১ জুলাই থেকে তারা পশ্চিম তীরে ও জর্ডান ভ্যালির বিস্তৃত অঞ্চলে বসতি স্থাপন বাড়ানো হবে। ইসরায়েলের এই ঘোষণা আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন।

এসব কার্যক্রমের শুরু হয়েছে গত জানুয়ারিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রস্তাবিত ডিল অব দ্য সেঞ্চুরি-কে ঘি
রে। এই চুক্তিতে ট্রাম্প পশ্চিম তীরের জর্ডান ভ্যালিকে ইসরায়েলের ভূখণ্ড হিসেবে সমর্থন দেন। এ ছাড়া এই চুক্তির আওতায় অবৈধভাবে গড়ে উঠা ইসরায়েলি বসতিকে বৈধতা দেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া জেরুজালেমকে ইসরায়েলের অন্তর্ভুক্ত হিসেবে ঘোষণা দেন হয় ট্রাম্প। প্রস্তাবিত চুক্তিতে পশ্চিম তীরের মাত্র ১৫ শতাংশ অঞ্চল ফিলিস্তিনিদের জন্য বরাদ্দ করে সার্বভৌম ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠন সম্ভব নয় বলে উল্লেখ করা হয়।

ট্রাম্পের এই পরিকল্পনা মোতাবেক ইসরায়েল তাদের বসতি স্থাপন বৃদ্ধির কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে। ইসরায়েল তাদের এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারলে ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র বলতে সেখানে কিছু থাকবে না। ফলে পূর্ব জেরুজালেমকে রাজধানী হিসেবে গণ্য করে ভবিষ্যত যে ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের স্বপ্ন দেখা হচ্ছে তা ধুলিসাৎ হবে।

জাগো প্রহরী/গালিব

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ