বাংলাদেশ সীমান্তে মিয়ানমারের গুলিবর্ষণ, হাই এলার্টে বিজিবি


জাগো প্রহরী : কক্সবাজারে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের তামব্রু শূন্যরেখার কাছাকাছি এলাকায় ব্যাপক গুলিবর্ষণ করেছে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী। এতে ওই এলাকায় আশ্রিত রোহিঙ্গারা ব্যাপক আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। এ ঘটনার পর থেকে সর্তক অবস্থানে রয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

শুক্রবার ( ৫ জুন ) তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার ৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ।

তিনি বলেন, গত বৃহস্পতিবার ( ৪ জুন ) বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে মিয়ানমারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দেশটির ৫০০ গজ ভেতরে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনী এবং সীমান্তরক্ষী বাহিনী-বিজিপি যৌথভাবে একটি অভিযান চালায়। তখন এমন গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

তিনি বলেন, গুলিবর্ষণ শুরু হলে শূন্যরেখায় আশ্রিত রোহিঙ্গারা আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। পরে যোগাযোগ করা হলে মিয়ানমারের পক্ষ থেকে এমন কথা বলা হয়। এ ঘটনায় বিজিবির পক্ষ থেকে একটি প্রতিবাদলিপি পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। পাশাপাশি সীমান্তে সর্বোচ্চ সর্তকাবস্থানে থেকে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে বিজিবি।

জানা গেছে, তুমব্রু সীমান্তের শূন্যরেখায় কোনারপাড়া এলাকায় মিয়ানমারের অভ্যন্তরে এক হাজারের বেশি পরিবারের ৫ হাজারের মতো রোহিঙ্গা বসবাস করছেন। মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসার সময় তারা সেখানে আটকা পড়েন। তাদের বাংলাদেশে ঢুকানোর জন্য বিভিন্ন সময় গুলিবর্ষণ করে আসছিল মিয়ানমার।

সীমান্তের নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, গতকাল বিকেলে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের নো-ম্যানস ল্যান্ডে গুলিবর্ষণের খবর পওয়া গেছে। তবে ঘটনাটি মিয়ানমারের অভ্যন্তরে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে একটি যৌথ অভিযান।

জাগো প্রহরী/গালিব

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ