ভারতে এবার ময়লা ফেলার গাড়িতে সরানো হলো মৃতদেহ


জাগো প্রহরী : কিছুদিন আগেই ভারতে করোনায় মৃত ব্যক্তির লাশ ছুঁড়ে ফেলার ঘটনা প্রবল সমালোচিত হয়েছিল। এবার করোনায় সংক্রমিত হওয়ার ভয়ে রাস্তায় পড়ে থাকা মৃতদেহ ময়লা ফেলার গাড়িতে করে তুলে থানায় নিয়ে গেলেন কর্পোরেশনের কর্মীরা। বুধবার উত্তরপ্রদেশের বলরামপুর শহরে এই চরম অমানবিক ঘটনা দেখা যায়।

ইতিমধ্যেই ভ্যানে মৃতদেহ তুলে নিয়ে যাওয়ার ছবি এবং ভিডিও সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। আর এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই আবার নিন্দার ঝড় উঠেছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার স্থানীয় একটি সরকারি অফিসে ব্যক্তিগত কাজে গিয়েছিলেন বলরামপুরের বাসিন্দা মোহাম্মদ আনোয়ার। অফিসের গেটের সামনেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। সেখানেই তার মৃত্যু হয়। এর পর তার লাশ নিয়ে একের পর এক ঘটনা ঘটতে থাকে। সেই ঘটনাক্রমের একাধিক ভিডিও ক্লিপ সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। ভিডিওগুলিতে দেখা গিয়েছে, মোহাম্মদ আনোয়ারের লাশ মাটিতে পড়ে রয়েছে। তার পাশে রয়েছে একটি পানির বোতল। লাশের পাশে এক জন পুলিশকর্মী এবং একটি ময়লা সরানোর গাড়ি দাঁড়িয়ে রয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় একটি অ্যাম্বুলেন্সও। কিন্তু তাতে আনোয়ারের লাশ তোলা হয়নি। এর পরই ঘটে সেই মর্মান্তিক ঘটনা। শেষ পর্যন্ত ময়লা ফেলার ওই গাড়িটিতে তোলা হয় আনোয়ারের লাশ। নিয়ে যাওয়া হয় থানার উদ্দেশে।

গোটা ঘটনাটিকে ‘অমানবিক এবং অসংবেদনশীল’ বলে উল্লেখ করেছে বলরামপুর পুলিশ। ওই ঘটনার তদন্তের নির্দেশও দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে বলরামপুর পুলিশের প্রধান দেবাঞ্জন ভার্মা বলছেন, ‘করোনার মতো মহামারি নিয়ে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক রয়েছে। কিন্তু ওই কর্মীরা অমানবিক কাজ করেছেন। পুলিশ এবং কর্পোরেশনের কর্মীদের তরফে বড় ভুল হয়েছে। যদি করোনাই সন্দেহ করা হবে, তা হলে পিপিই নিয়ে যাওয়া উচিত ছিল।’ তবে কী কারণে আনোয়ার নামে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে তা স্পষ্ট নয়। সূত্র: এবিপি।


জাগো প্রহরী/এফআর

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ