আলিয়ার অবস্থা দেখার পরেও যারা সরকারি অনুদানের পক্ষে মতামত দেন ওরা অন্ধ, বধির



মুফতী সাখাওয়াত হোসাইন রাজী ৷৷

কওমী মাদ্রাসা কওমের সহযোগিতায় চলে। সরকারি অনুদান না নেয়ার পিছনে অনেক যুক্তি ও হেকমত আছে।আলিয়া মাদ্রাসাগুলোর বর্তমান অবস্থা দেখার পরেও যারা সরকারি অনুদানের পক্ষে মতামত দেন ওরা অন্ধ বধির অবিবেচক।

সামান্য কয়টা টাকা নেওয়ার পর এখন যখন কওমের কাছে যাবেন কওম বলবে, আপনারাতো সরকারের অনুদান পান আমাদের কাছে কেন এসেছেন? অথচ সরকারের অনুদানে আপনার এক মাসের বিদ্যুৎ বিল হবে না।

কেউ বলবে তাহলে আমরা পুরোপুরি সরকারি হয়ে যাই। আপনাদের কি চোখ নেই, আপনারা কি দেখতে পারছেন না যে, এমপিওভুক্তির জন্য শিক্ষকরা প্রেসক্লাবে সপ্তাহের পর সপ্তাহ অনশন করে অথচ তাদের প্রতিষ্ঠানগুলো এমপিওভুক্ত হয় না। আপনি চাইলেই আপনার প্রতিষ্ঠান কীভাবে সরকারি হবে? অতঃপর যদি কোনভাবে কোন মাদ্রাসা সরকারি হয়ে যায় তখন সেটা আর মাদ্রাসা থাকবে না। দাসত্বের শৃঙ্খলে আবদ্ধ একটা কর্মশালা হবে।

(mufti sakhawat hossain razi ফেসবুক পেজ
থেকে নেয়া)

জাগো প্রহরী/গালিব

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য