ডিজিটাল আইনে সরকার গ্রেফতার খেলায় মেতেছে : ভিপি নুর


জাগো প্রহরী : ডিজিটাল আইনে সরকার গ্রেফতার খেলায় মেতেছে: ভিপি নুর ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ব্যবহার করে ভিন্নমত দমনের জন্য মহামারির মধ্যেও সরকার গ্রেফতার খেলায় মেতেছে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর।

রবিবার (১০ মে) দুপুরে রাজধানীর প্রেসক্লাবের সামনে ‘রাষ্ট্রচিন্তা ও বন্ধুজনের’ উদ্যোগে বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ও অন্যায়ভাবে গ্রেফতারকৃতদের মুক্তি দাবিতে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘বিতর্কিত ডিজিটাল আইনে মানুষকে গুম করছে, বাসা থেকে তুলে নিয়ে অন্যায়ভাবে মিথ্যা মামলায় জড়াচ্ছে।’ 

ভিপি নুর বলেন, বিতর্কিত ডিজিটায় নিরাপত্তা আইনের শুরু থেকে বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ বাতিলের দাবি তুলেছিল। এমনকি গণমাধ্যমের কর্মীরাও এই আইনে হয়রানির শিকার হবেন, বাধাগ্রস্থ হবেন বলে আপত্তি তুলেছিলেন। ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রয়োগের শুরু থেকেই ভিন্নমতের ধমন করতে আইনটিকে ব্যবহার করা হচ্ছে। অথচ যখন বিভিন্ন গণমাধ্যমের সম্পাদকদের সংগঠন ‘সম্পাদক পরিষদ’ এই আইনের বেশ কয়েকটি ধারা নিয়ে আপত্তি তোলেন তখন তথ্যমন্ত্রী বলেছিলেন এই আইনে কোন সাধারণ মানুষ অথবা কোন সাংবাদিককে হয়রানি করা হবে না।’ 

সাংবাদিক কাজলের ঘটনা তুলে ধরে নুর বলেন, সাংবাদিক কাজল অফিস থেকে রাতে বের হওয়ার পর গুম হন। তারপর ৫৩ দিন পর সীমান্তবর্তী অঞ্চলে তাকে পাওয়া যায়।

এছাড়া একজন কার্টুনিষ্ট একজন ব্যবসায়ীসহ অসংখ্য মানুষকেও করোনা মহামারিতে সরকার অন্যায় ভাবে গ্রেফতার করেছেন।

 ডাকসু ভিপি বলেন, শুধুমাত্র সরকারের দূর্বলতাকে আড়াল করার জন্য, নাগরিকদের মুখ বন্ধ করার জন্য বিভিন্ন হুমকি দিচ্ছে, হয়রানি করছে এমনকি তুলে নিয়ে যাচ্ছে। কয়েকদিন আগে রাষ্ট্রচিন্তার নেতা দিদারকে র‌্যাবের সাদা পোশাকধারীরা তুলে নিয়ে গেছেন। এই সাদা পোশাকে তুলে নেয়ার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও সেটাকে তোয়াক্কা না করে সরকার এটা করে যাচ্ছে। 

নুর বলেন, করেনা পরিস্থিতিতে মানুষ মৃত্যুর ভয়ে মানুষ বাসা-বাড়ি থেকে বের হচ্ছে না কিন্তু আজ পিঠ দেয়ালে ঠেকে যাওয়ায় বিতর্কিত ডিজিটাল আইনের বাতিলের দাবিতে রাজপথে আসতে বাধ্য হয়েছে। আমরা অনেক নির্যাতনের শিকার হয়েছি এদেশের অসংখ্য মানুষ এ সরকারের নির্যাতনের শিকার হয়েছে। 

আর নয় এখন আমাদের সবার ঐক্যবদ্ধ প্রতিবাদ করতে হবে। আমরা শাহবাগ, প্রেসক্লাবে অনেক দাঁড়িয়েছে আর নয় এবার গণবভনের সমনে দাঁড়াতে হবে। 

 জাগো প্রহরী/এফ আর

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য