ন্যাম ভার্চুয়াল সামিট: ভারতে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা বৃদ্ধিতে পাকিস্তান প্রেসিডেন্টের উদ্বেগ


জাগো প্রহরী : পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট ড. আরিফ আলভি প্রতিবেশী দেশ ভারতে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা, বিদ্বেষমূলক বক্তব্য ও ইসলামোফোবিয়া বৃদ্ধিতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

সোমবার ( ৪ মে ) কোভিড-১৯ নিয়ে জোট নিরপেক্ষ আন্দোলনের (ন্যাম) সদস্য দেশগুলোর ভার্চুয়াল সামিটে তিনি এই উদ্বেগ প্রকাশ করেন। ন্যামের বর্তমান চেয়ারম্যান আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভের আমন্ত্রণে ন্যাম সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধানরা এই সামিটে যোগ দেন।

বিশ্বের ১২০টি দেশ ন্যামের সদস্য। স্নায়ুযুদ্ধ তুঙ্গে থাকার সময় যেসব দেশ কোনপক্ষে যোগ দিতে অস্বীকার করে তাদের নিয়ে এই সংস্থা গড়ে উঠে। তখন দুটি ক্ষমতার কেন্দ্র ছিলো ওয়াশিংটন ও মস্কো। ফলে উন্নয়নশীল দেশগুলো স্বার্থ রক্ষায় সোচ্চার সংস্থায় পরিণত হয় ন্যাম।

প্রেসিডেন্ট আলভি বলেন, সেখানে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা, বিদ্বেষমূলক বক্তব্য, ইসলামোফোবিয়া, বিদেশীভীতি ও অন্যন্য ধরনের বৈষম্য উদ্বেগজনক মাত্রায় বেড়ে গেছে। শিশু, নারী ও বৃদ্ধদের গালিগালাজ করা হচ্ছে, মৃত্যুর হুমকি দেয়া ও শারীরিকভাবে আক্রমণ করা হচ্ছে। গুরুত্বপূর্ণ স্বাস্থ্য সেবা থেকে মুসলমানদের বঞ্চিত রাখা হচ্ছে। আমাদের নিকট প্রতিবেশী থেকে আর কোন দেশে এত বেশি মাত্রায় এসব বৈষম্য দেখা যায় না।

ভারতের উগ্র-ডানপন্থী সরকারের বিদ্বেষপূর্ণ আচরণের তীব্র সমালোচনা করে প্রেসিডেন্ট আলভি বলেন, এই সরকারের কাজগুলো তার আদর্শিক চেতনা ও সংখ্যালঘু-বিরোধী এজেন্ডার বাস্তবায়ন মাত্র।

তিনি বলেন, সেখানে করোনাভারাসের বিস্তারকে বলা হচ্ছে করোনা জিহাদ। আলভি ন্যাম সদস্যদেরকে মনে করিয়ে দেন যে বিশ্ব যখন কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে লড়াই করছে তখন এই মহামারীর আড়ালে যে বিপজ্জনক প্রবণতা তৈরি হচ্ছে সেগুলোর ব্যাপারে বেখবর থাকলে চলবে না।

আলভি আক্ষেপ করে বলেন, মহামারীর সময়ে ভারতে মুসলমানদের বিরুদ্ধে আরো বেশি করে ঘৃণা ছড়ানো হচ্ছে। মুসলিম রোগীদের চিকিৎসা করতে হাসপাতাল অস্বীকার করছে। বিভিন্ন মহল্লায় মুসলমানদের প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। মুসলমানদেরকে চাকরিচ্যুত করা হচ্ছে।

প্রেসিডেন্ট আক্ষেপ করে বলেন যে এই মহামারীর সময়ে কাশ্মিরের নিয়ন্ত্রণ রেখায় ভারত একটি যুদ্ধ-পরিস্থিতি তৈরি করেছে। অথচ এই ভাইরাস আমাদের দেখিয়ে দিয়েছে যে কোন দেশের পক্ষে একা পরিস্থিতি মোকাবেলা করা সম্ভব নয়। 

করোনাভাইরাসের কারণে উন্নয়নশীল দেশগুলো ব্যাপক দারিদ্র ও বেকারত্বের মুখে পড়তে পারে বলেও হুঁশিয়ার করে দেন তিনি।

সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট আলভি করোনা মোকাবেলায় তার দেশের গৃহিত পদক্ষেপগুলো তুলে ধরেন।

সূত্র : ডন

জাগো প্রহরী/গালিব

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য