শয়তানের আজকের অন্যতম প্রধান টার্গেট কী?


মুফতি আ ফ ম  আকরাম হুসাইন ৷৷

জি, শয়তানের আজকের অন্যতম প্রধান টার্গেট হল,  আপনাকে আমাকে অতিরিক্ত ব্যস্ত প্রমাণ করা। হাজারো কাজ সামনে হাজির করা। যাতে আমরা রমজানের শেষ দশকের সুন্নত এতেকাফ থেকে মাহরুম হয়ে যাই।

আপনি-আমি শবে ক্বদর পেয়ে যাই- আমাদের আমলনামা হাজার মাসের আমলে ভরপুর হয়ে যাক-
এটা কি শয়তান সহ্য করতে পারে? শয়তান তো আল্লাহর সামনে আল্লাহর ইজ্জতের কসম করে বলেছে, আমি সবমানুষকে বিপদগামী করে ছাড়বো। তবে আল্লাহ, আপনার মুখলিছ বান্দারা ব্যতীত (তাদেরকে গোমরাহ করতে পারব না)
সূরা সোয়াদ, আয়াত ৮২ ও ৮৩

আসুন সতর্ক হই। শয়তানের চক্রান্তে লাত্থি মারি। এতেকাফের দৃঢ় নিয়ত করে আজ ২০ রমজান মাগরিবের পূর্বেই পুরুষরা মসজিদে ঢুকে পড়ি আর মহিলারা ঘরে  নির্দিষ্ট জায়গা করে নেই এতেকাফের জন্য।

রাসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম জীবনের হাজারো ব্যস্ততায় রমজানের শেষ দশকের সুন্নত এতেকাফ ছাড়েননি। ছাড়েননি আম্মাজানরাও। রাষ্ট্রপ্রধান রাসূলের চেয়ে আমাদের ব্যস্ততা কি খুব বেশী নাকি ধোকায় নিপতিত আমরা!

বিশেষত নায়েবে নবীগণ কি এই যুগে নবীর চেয়েও গুরু দায়িত্ব পালন করছি নাকি সুস্পষ্ট বিচ্যুতির পথে পা বাড়াচ্ছি!

চলুন, মানুষের দ্বারে দ্বারে না ঘুরে জায়নামাজের নিচ থেকে যাবতীয় জরুরত পূর্ণ করি। আল্লাহ আমাদেরকে তাওফিক দান করুন আমীন।

আচ্ছা, এভাবে ভেবেছেন কি? আপনি আমি কি আসলেই আল্লাহর প্রিয়? তবে তো আমাকে তাঁর ঘরে ১০ দিনের জন্য মেহমান করে নিতেন। ২০/৩০/৪০/৫০/৬০ বছরের জিন্দেগীতে একবারও মাত্র ১০ দিনের জন্য আল্লাহর ঘরে থাকার সুযোগ- তাওফিক ও মঞ্জুরী পেলাম না, এটা দূর্ভাগ্যের সুস্পষ্ট আলামত নয়? এতেকাফ যদি এতই ঢিলেঢালা আমল হয় তবে প্রতি রমজানে রাসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম করলেন কেন? ভেবেছি কি?

সাবধান বন্ধু!
কোন অজুহাতে এতেকাফ যাতে না ছুটে! শয়তান যাতে বিজয়ী না হয়।

লেখক - শিক্ষক, জামিয়া নূরিয়া ইসলামিয়া আশরাফাবাদ কামরাঙ্গীরচর ঢাকা।
সেক্রেটারী জেনারেল, জাতীয় ইমাম পরিষদ বাংলাদেশ

জাগো প্রহরী/এফ আর

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য