কাশ্মিরে গুলির লড়াই


জাগো প্রহরী : ভারত অধিকৃত জম্মু ও কাশ্মিরের অবন্তীপুরায় হিজবুল মুজাহিদিন নামক একটি সংগঠনের সাথে ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর গুলির লড়াই চলছে বলে জম্মু ও কাশ্মিরের পুলিশের উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

বুধবার ( ৬ মে ) দুপুরে প্রকাশিত ওই খবরে প্রকাশ, সংগঠনটির এক শীর্ষ কমান্ডারকে ঘিরে ফেলেছে নিরাপত্তা বাহিন‌ী। পুলিশের মুখপাত্র জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাতে ওই অপারেশন শুরু হয়েছে। যে বাড়িতে ওই শীর্ষ নেতা লুকিয়ে রয়েছে, তাকে ঘিরে ফেলে এই মুহূর্তে গুলিবর্ষণ শুরু করেছে নিরাপত্তা বাহিনী। সূত্রানুসারে, ওই কমান্ডার কাশ্মিরের ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ তালিকায় থাকা অন্যতম একজন।

সূত্র থেকে জানা যাচ্ছে, ওই নেতা ও তার সঙ্গীকে এরই মধ্যে হত্যা করা হয়েছে। কিন্তু সরকারিভাবে এই সংবাদকে প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাত থেকে গুলির লড়াই শুরু হওয়ার পর থেকেই কাশ্মিরের মোবাইল ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে।

এদিন সকাল ৯টা ৭ মিনিটে জম্মু ও কাশ্মিরের পুলিশের পক্ষ থেকে টুইট করে বলা হয়, শীর্ষস্থানীয় ‘জঙ্গি’ কমান্ডারকে ঘিরে ফেলা হয়েছে। অবন্তীপুরায় অবন্তীপুর পুলিশের পক্ষ থেকে তৃতীয় অপারেশন শুরু করা হয়েছে।

পুলিশের বক্তব্য, ওই নেতা স্থানীয় তরুণদের ‘জঙ্গি’ দলে ঢোকানোর কাজে লিপ্ত ছিল। পাশাপাশি আরো বহু অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এর মধ্যে অন্যতম বিশেষ পুলিশ কর্মকর্তাদের হত্যা করা।

২০১৮ সালে বিদ্রোহী হানা ও হামলার হুমকির কারণে বহু বিশেষ পুলিশ কর্মকর্তা চাকরি ছেড়ে দেন। শোপিয়ান ও পুলওয়ামাতেও পুলিশ কর্মকর্তারা একই পথে হাঁটেন।

উল্লেখ্য, গত মাসে কর্মকর্তাসহ অন্তত ২২ জন সেনাকর্মী কাশ্মির উপত্যকায় হামলায় নিহত হয়েছেন। ভারতের পক্ষ থেকে এজন্য পাকিস্তানকে দায়ী করা হচ্ছে।

গত রোববার এক কর্নেল ও মেজরসহ পাঁচজন নিরাপত্তা কর্মী জম্মু ও কাশ্মিরের কুপওয়াড়া জেলায় স্বাধীনতাকামীদের সাথে এক এনকাউন্টারে নিহত হন। এরপর সোমবার একই এলাকায় এক সিআরপিএফ দলের উপরেও হামলার ঘটনা ঘটে। মৃত্যু হয় তিনজনের।

সূত্র : এনডি টিভি

জাগো প্রহরী/ফাইয়াজ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য