ভারতে ৩ বাহিনীর ১১০০ সদস্য করোনায় আক্রান্ত


জাগো প্রহরী : ভারতে সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ থেকে শুরু করে দিল্লি পুলিশের ১১০০ জওয়ান করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। শনিবার ( ৯ মে ) এবিপিলাইভ ডটকম সূত্রে প্রকাশ, আধাসামরিক বাহিনী বিএসএফ, সিএপিএফ, এসপিআরএফ, আইটিবিপি এবং দিল্লি পুলিশের ১১০০’র বেশি জওয়ান করোনা সংক্রমিত হয়েছে। যে গতিতে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে, তাতে ‘ফ্রন্টলাইন যোদ্ধা’ হিসেবে কাজ করা জওয়ানদের পক্ষে ক্রমশ ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে।

আধাসামরিক বাহিনী বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্সে (বিএসএফ) করোনাভাইরাসের ৩০টি নয়া ঘটনার সাথে সংক্রমিত জওয়ানের সংখ্যা ২২৩ হয়েছে।

কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ বাহিনীর (সিএপিএফ) মধ্যে এই সংখ্যাটি সর্বোচ্চ। সব মিলিয়ে আধাসামরিক বাহিনীর ৫০৮ জওয়ান করোনা আক্রান্ত হয়েছে।

সিআরপিএফ ব্যাটেলিয়ানে এ পর্যন্ত ১৩৫ জওয়ান আক্রান্ত হয়েছেন। পূর্ব দিল্লির ময়ূর বিহারের সিআরপিএফের ৩১ ব্যাটেলিয়ানের উপ-পরিদর্শক মুহাম্মাদ ইকরাম হুসেইন সম্প্রতি করোনাযুদ্ধে দিল্লির সফদরজং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

ইন্দো-তিব্বত সীমান্ত পুলিশ (আইটিবিপি)-এর মোট ৮৮ জওয়ানের করোনাভাইরাস পজিটিভ পাওয়া গেছে। কমপক্ষে ১৫০ জন কোয়ারেন্টাইনে আছেন। বিদেশ থেকে আসা লোকেদের জন্য আইটিবিপি’ই প্রথম কোয়ারেন্টাইন সেন্টার চালু করেছিল।

এসপিআরএফ গ্রুপ ৭-এর আরো ১৫ জওয়ানের মধ্যে পুনের দৌন্ডে করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। এসপিআরএফ গ্রুপে এপর্যন্ত মোট ২৭টি ঘটনা রয়েছে এবং ১৬০ জওয়ানকে কোয়ারেন্টাইনের আওতায় রাখা হয়েছে। তারা সকলেই মহারাষ্ট্রের মুম্বাইয়ে করোনা ডিউটিতে মোতায়েন ছিলেন।

অন্যদিকে, দিল্লি পুলিশের ৭৫ জনের বেশি জওয়ানের করোনা পজিটিভ। এরমধ্যে কনস্টেবল থেকে ইন্সপেক্টর পদমর্যাদার কর্মকর্তাও রয়েছেন। করোনার কবলে পড়ে দিল্লি পুলিশ এরইমধ্যে এক জওয়ানকে হারিয়েছে। অমিত নামের ওই জওয়ান দিল্লির ভারত নগর থানায় কর্মরত ছিলেন।

সূত্র : পার্সটুডে

জাগো প্রহরী/ফাইয়াজ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য