কৃষ্ণাঙ্গ হত্যাকারী সেই পুলিশকে ডিভোর্স দিচ্ছেন স্ত্রী

জাগো প্রহরী : আগে চাকরিটা হারিয়েছেন। এবার স্ত্রী দিচ্ছেন ডিভোর্স। যুক্তরাষ্ট্রের মিনিয়াপোলিস অঙ্গরাজ্যে জর্জ ফ্লয়েড নামের কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তিকে হত্যা করে আমেরিকায় ‘আগুন জ্বালানো’ শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অফিসার ডেরেক চাওভিন সামনে জেল-জরিমানার মুখেও পড়তে পারেন।

সিবিএসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কেলি চাওভিন শুক্রবার ডেরেককে ডিভোর্স লেটার পাঠিয়েছেন।

ফ্লয়েডের মৃত্যুতে তিনি ভেঙে পড়ার কথা জানিয়েছেন।
ডেরেক ইতিমধ্যে ‘থার্ড ডিগ্রি’ মার্ডারের অপরাধে অভিযুক্ত হয়েছেন। ২৫ মে সন্ধ্যায় ‘প্রতারণার অভিযোগ’ সংক্রান্ত কল পেয়ে তিনি ৪৬ বছর বয়সী জর্জ ফ্লয়েডকে আটক করেন। পরে তাকে মেরেও ফেলেন।

একজন প্রত্যক্ষদর্শীর তোলা ১০ মিনিটের ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, গলায় হাঁটু চেপে ধরায় ফ্লয়েড নিঃশ্বাস না নিতে পেরে কাতরাচ্ছেন এবং বারবার ডেরেককে বলছেন, ‘আমি নিঃশ্বাস নিতে পারছি না’।

 ‘ইন্টারনাল অ্যাফেয়ার্সে’ ডেরেকের বিরুদ্ধে আগে আরও ১৮টি অভিযোগ ছিল।

২০১৮ সালে মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের সেরা সুন্দরী নির্বাচিত হওয়া কেলি চাওভিন তার আইনজীবীর মাধ্যমে ফ্লয়েডের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন।

তার আইনজীবী বলেছেন, ‘সন্ধ্যায় আমি কেলির সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি ভেঙে পড়েছেন।

ফ্লয়েডের মৃত্যুর পর আমেরিকায় তীব্র আন্দোলন শুরু হয়েছে। কৃষ্ণাঙ্গদের পাশাপাশি অনেক শ্বেতাঙ্গও এই আন্দোলনে সামিল।

জাগো প্রহরী/গালিব

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ