ঢাবির অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে


জাগো প্রহরী : করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন রাজধানীর একটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন৷ রোববার (৩ মে) সন্ধ্যায় মুগদা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তাঁকে।

হাসপাতালের কোভিড-১৯ বিষয়ক টিমের ফোকাল পার্সন ডা. মাহবুবুর রহমান গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ৬৯ বছর বয়সী অধ্যাপক মুনতাসীর মামুনের  শারীরিক অবস্থা ভালো নয়। আইসিইউ কল করা হয়েছে। সিট পাওয়া গেলে রাতেই আইসিইউতে শিফট করা হবে।’

এর আগে বিকালে গণমাধ্যমকর্মীরা অধ্যাপক মুনতাসীর মামুনকে ফোন করলে তিনি মুগদা হাসপাতালে যাচ্ছেন জানিয়ে কল কেটে দেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক মুনতাসীর মামুনের মুক্তিযুদ্ধের গবেষণাধর্মী কাজ রয়েছে।

একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে আন্দোলনে সম্পৃক্ত থাকার পাশাপাশি যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালে সাক্ষ্যও দিয়েছেন এই অধ্যাপক। রয়েছেন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটিতেও। বর্তমানে কমিটিতে সহ-সভাপতির দায়িত্বে আছেন তিনি।

তার প্রচেষ্টায় ২০১৪ সালের ১৭ মে খুলনায় প্রতিষ্ঠিত হয় গণহত্যা নির্যাতন আর্কাইভ ও জাদুঘর। এছাড়া একাত্তরের ২৫ শে মার্চের কালরাতের গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য লড়ছেন তিনি।

স্বাধীন বাংলাদেশে ডাকসুর প্রথম নির্বাচনে সদস্য পদে জয়ী হয়েছিলেন মুনতাসীর মামুন। ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক সংসদের সভাপতি। তিনি জাতীয় জাদুঘরের ট্রাস্টি বোর্ড এবং শিল্পকলা একাডেমি ও জাতীয় আর্কাইভসের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য ছিলেন। এছাড়া ঢাকা নগর জাদুঘরের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা তিনি।

প্রতিষ্ঠা করেছেন সেন্টার ফর ঢাকা স্টাডিজ (ঢাকা চর্চা কেন্দ্র)। এছাড়া বাংলা একাডেমির একজন ফেলো অধ্যাপক মুনতাসীর মামুন।

জাগো প্রহরী/এফ আর

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য