করোনায় বন্দির মৃত্যু: কোয়ারেন্টিনে সিলেট কারাগারের শতাধিক


জাগো প্রহরী : সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের এক বন্দি মারা যাওয়ার পর করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসায় কারাগারের প্রায় ১২০ জন হাজতি ও কর্মকর্তা-কর্মচারীকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।মঙ্গলবার (১২ মে) সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. আব্দুল জলিল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 তিনি বলেন, গত সোমবার রাতে ওই হাজতির রিপোর্ট পজিটিভ আসার পর তার সংস্পর্শে আসা কারাগারের প্রায় ১২০ জন হাজতি ও কর্মকর্তা-কর্মচারীকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। তাদের সকলের নমুনা সংগ্রহ করে করোনা টেস্ট করা হবে।

জানা যায়, রোববার সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক ব্যক্তি মারা যান। সোমবার (১১ মে) সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার পর তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। মারা যাওয়া ব্যক্তি একটি হত্যা মামলায় সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি ছিলেন।

এদিকে মারা যাওয়া বন্দির করোনা শনাক্ত হওয়ার পর সোমবার রাতে ওই বন্দি কারাগারের যে ওয়ার্ডে ছিলেন সেই ওয়ার্ড লকডাউন করা হয়েছে।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার সূত্রে জানা যায়, মারা যাওয়া ব্যক্তির বাড়ি সিলেটের কানাইঘাট উপজেলায়। গত ৫ মে একটি খুনের মামলায় তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। এরপর ৮ মে (শুক্রবার) তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে কারা কর্তৃপক্ষ তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। তবে তার মধ্যে করোনার উপসর্গ থাকায় ওসমানী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে প্রেরণ করে।পরদিন ৯ মে তার নমুনা সংগ্রহ করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়। 

রোববার (১০) মে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। আর সোমবার (১১ মে) নমুনা পরীক্ষায় তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

জাগো প্রহরী/এফ আর

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য