রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুনে পুড়ে ছাই ৩১২টি ঘর ও ৩৭টি দোকান


জাগো প্রহরী : কক্সবাজারের লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে ৩১২টি ঝুপড়ি ঘর ও ৩৭টি দোকান। এতে আনুমানিক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। মঙ্গলবার ( ১২ মে ) সকাল ৮টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ড ঘটে।

রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন, প্রতিটি বাড়িতে গ্যাসের সিলিন্ডার রয়েছে। অধিকাংশ রোহিঙ্গা ঠিকমতো এর ব্যবহার বিধি জানে না। তাই প্রতিনিয়ত অগ্নিকাণ্ড ঘটছে। রান্নাঘরের চুলা থেকে মঙ্গলবার এ আগুনের সূত্রপাত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে উখিয়ার ফায়ার সার্ভিসের  দুইটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

উখিয়া থানার তদন্ত ওসি নুরুল ইসলাম বলেন, ‘মঙ্গলবার সকালে ক্যাম্পের একটি ঘরের গ্যাস সিলিন্ডার থেকে আগুন লেগে ক্যাম্পে ছড়িয়ে পড়ে। এতে দোকানসহ ৩’শটির বেশি ঘর আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এ ঘটনায় ১০ জন আহত হয়েছে। তাদের উদ্ধার করে প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্তদের অন্যত্রে আশ্রয় দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।’

এ ব্যাপারে উখিয়ার কুতুপালং লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের হেড মাঝি এবং ই ওয়ান ব্লকের বাসিন্দা আলী হোসেন বলেন, রান্না ঘরের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত। এতে পুড়ে গেছে রোহিঙ্গাদের ৩১২টি ঝুপড়ি ঘর। এরা এখন খোলা আকাশের নিচে বসে আছে।

জাগো প্রহরী/এফ আর

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য