একটি চিঠি : প্রিয় আমেরিকা!



ছাদিক সিরাজী:

হ্যালো আমেরিকা!
তুমি কেমন আছো? কেমন আছে তোমার সেই শয়তান ক্লিনটন, যে আমাদের শহরগুলো গুড়িয়ে দেওয়ার মাস্টারপ্ল্যান সম্পন্ন করেছিলো? কেমন আছে তোমার সেই রক্তপিপাসু ওয়াকার বুশ, যে আমাদের কাবুল কান্দাহার বাগদাদের রক্ত চুষেও নিজের পিপাসা মিটাতে পারেনি? কেমন আছে তোমার সেই মানুষরূপি শয়তান বারাক, যে আমাদের উপর ভিন্নরকম এক যুদ্ধ চাপিয়ে দিয়ে গেছে? আর কেমন আছে তোমার কনিষ্ঠ পুত্র ডোনাল্ড যাকে আমরা বদ্ধ উন্মাদ মনে করি? কেমন আছে তোমার পা–চাটা গোলাম বিন সালমান যে আমাদের ভাইদের বিরান করে চলেছে ইয়েমেনে? যার রোষানলে আজ পৃথিবীর কোটি কোটি ঈমানদার! কেমন আছে তোমার আরব্য গোলামগুলো যারা ধন–দৌলত, সুন্দরী নারীর পার্থিব নেশায় মদমত্ত হয়ে পড়ে আছে? সবাইকে আমার পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাসের শুভেচ্ছাজ্ঞাপন জানিয়ে দিও।

হ্যালো আমেরিকা!
আজ তোমার বুকে একলাখ চৌষট্টি হাজার জীবন্ত করোনা রোগী ধড়ফড় করছে! কেমন লাগে এই নিষ্ঠুর–নির্মমতা দেখতে? নিশ্চয়ই তোমার ভলো লাগে না! হ্যাঁ আমাদেরও ভালো লাগে না যখন তুমি সিরিয়া, ফিলিস্তিন, ইরাক, আফগানিস্তানে আমাদের তাজা প্রাণ নিয়ে খেলা করো! সত্যি বলছি আমেরিকা 'আমাদের ভালো লাগে না'। আমাদের ভালো লাগে না যখন তোমার অসভ্য সৈনিকেরা আমাদের পিতার কলিজা ছিড়ে খায়! সত্যি ভালো লাগে না যখন তোমার উজবুক সেনারা আমার বোনের ইজ্জতের রুটি ছিড়ে ছিড়ে খায়–আমাদের ঠিক এমনই লাগে যেমনটা তোমার আজকে লাগছে। কারণ তোমার বুকে আজ একলাখ চৌষট্টি হাজার মানুষ করোনায় কাতরাচ্ছে। এই সামান্য মানুষের লাশের নিস্তব্দ মিছিল দেখে যদি তোমার খারাপ লাগে তাহলে একবার ভালো করে চেয়ে দেখো আল–আকসার দৃশ্যপট। যেখানে পাখির মতো মুসলমান মারে ইহুদীবাদী জারজ রাষ্ট্র ইজরায়েল। অথচ তুমি নিরব বসে থাকো। সুতরাং আল্লাহ তোমার বাকশক্তি কেড়ে নিয়েছেন করোনা দিয়ে।

হ্যালো আমেরিকা!
আমরা কিন্তু চাই তোমার মানুষ সুস্থ ও সম্মানের জীবন লাভ করুক। কিন্তু তোমার ডোনাল্ড কি আর সেই পরিবেশ-পরিস্থিতি ঠিক রাখতে চাইবে? আজ করোনাকে প্রতিরোধ করার বিষয়টা তুমি কি মুসলিম দেশ দখল করার মতো খুব সহজ কিছু বলে মনে করছো যে একঘন্টায় দখল করে নেবে? মোটেও না। এটি এমন একটা বিপদ যা পারমানবিক অস্ত্রের সুপারপাওয়ারকে পাত্তাই দিতে চাইছে না—দেখো!

ভালো থেকো আমেরিকা। ভালো থাকুক তোমার মিশন। তবে রাস্তায় স্পীডব্রেকার থাকে না বেপরোয়া গাড়ির গতিরোধ করার জন্য? তেমনি তোমার অত্যাচার–নির্যাতনের গতিকে ভণ্ডুল করে দিতে আসছেন ইমান মাহদী আলাইহিস সালাম। একটু শুধু অপেক্ষা। দেখা হবে কোনো এক ময়দানে তাগুতের বিপক্ষ আর সত্যের সুমহান ঝাণ্ডা হাতে!

হে আমেরিকা! আমি কোটি কোটি মুসলমানের হৃদয়ের প্রশান্তি সেই কোমল শিশুদের পক্ষ থেকে এক হতভাগা ভাই বলছি যাদের চোখের জ্যোতি তুমি কেঁড়ে নিয়েছো। যাদের মা, বাবা, ভাই, বোন নেই তোমার বোমার আঘাতে বিলীন হয়ে গেছে। তাই তোমার বুকেও আজ নিরব–নির্মম মৃত্যুর মিছিল। কথাগুলোর সরল ভাবানুবাদ তুমি অনুধাবন করতে পারবে—প্রত্যাশা রেখে আজকের মতো শেষ করলাম।

ইতি: দূর বাংলার শেষ প্রান্ত থেকে ছাদিক সিরাজী

[চিঠির ভাষা নিজস্ব। ভাব মজলুম মুসলমানদের কলিজা থেকে]

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ