১৪শ’ বছরে এই প্রথম রমজানে মুসল্লিবিহীন আল আকসা মসজিদ

আল আকসা মসজিদ - ফাইল ছবি

জাগো প্রহরী : প্রতিবছর পবিত্র রমজানজুড়ে আল-আকসা মসজিদে হাজার হাজার মানুষ পাশাপাশি দাঁড়িয়ে জামাতে নামাজ পড়েন। মাসের শেষের দিকে সেখানে মুসল্লির সংখ্যা লাখ ছাড়িয়ে যায়। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই অর্থাৎ প্রায় ১৪শ’ বছর এভাবেই মুসল্লিরা নামাজ আদায় করে আসছেন।

তবে এ বছর আর সেই দৃশ্য দেখা যাবে না। কারণ, করোনাভাইরাসের কারণে মসজিদটিতে জামাতে নামাজ আদায় বন্ধ করা হয়েছে। তাই ইতিহাসে এই প্রথমবারের মতো রমজান মাসে মুসল্লিশূন্য থাকছে মুসলমানদের তৃতীয় পবিত্রতম জেরুজালেমের এ মসজিদ।

মিডল ইস্ট মনিটর জানায়, করোনাভাইরাসের কারণে ফিলিস্তিনে সব ধরনের জনসমাগম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। স্কুল-কলেজ, রেস্টুরেন্ট, বিনোদন কেন্দ্র বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। স্থগিত করা হয়েছে মসজিদে জামাতে নামাজ আদায়ও। পূর্ব জেরুজালেমের বাসিন্দা আম্মার বাকির বলেন, কোনো মুসল্লি নেই, কোনো মানুষ নেই। আল-আকসা মসজিদ বন্ধের ব্যাপক প্রভাব ফিলিস্তিনি জনগণের ওপর পড়েছে।

আল-আকসার পরিচালক শেখ ওমর আল-কিসোয়ানি বলেন, এমন সিদ্ধান্ত ১৪শ’ বছরের মধ্যে প্রথম নেয়া হল। এটা খুবই কঠিন, এতে সবার মনেই কষ্ট হচ্ছে।

উল্লেখ্য, করোনা মহামারীর কারণে ২২ মার্চ আল-আকসা মসজিদে জামাতে নামাজ আদায় বন্ধ ঘোষণা করে জেরুজালেম ইসলামিক ওয়াকফ কাউন্সিল। ১৬ এপ্রিল তারা জানায়, এ নিষেধাজ্ঞা এবারের রমজানজুড়েও অব্যাহত থাকবে। সবাইকে তারাবির নামাজ বাড়িতেই আদায় করার অনুরোধ জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে নামাজ আদায়ে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও পাঁচ ওয়াক্তেই আল-আকসায় যথারীতি আজান দেয়া হবে।

জাগো প্রহরী/এমএ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য