ত্রাণের চাল যারা চুরি করে তারা মানুষ নয় : পীর সাহেব চরমোনাই

পীর সাহেব চরমোনাই  - ফাইল ফটো


জাগো প্রহরী ডেস্ক : 

করোনা মহামারীতে সারাদেশে সাধারণ ছুটি থাকায় দরিদ্র অসহায় ও মধ্যবিত্তের মানুষ মানববেতর জীবন যাপন করছে। সেই অসহায় মানুষের ত্রাণ নিয়ে সরকার দলীয় নেতাদের দুর্নীতি সহ্য করা যায় না। আজ রবিবার ( ১২ এপ্রিল ) এক বিবৃতিতে উপরোক্ত কথাগুলো বলেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমির মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই ৷

তিনি বলেন, জাতির ক্রান্তিকালে যারা অসহায় মানুষের মুখের আহার কেড়ে নেয়, তারা মানুষ নামের পশু। এদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। সরকার দলীয় বিবেচনায় ত্রাণ দিচ্ছে, ফলে অনেক অসহায় ও মধ্যবিত্তের মানুষ ত্রাণ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। সরকারি ত্রাণ নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতাদের হরিলুট অবস্থা বিশ্বে বাংলাদেশকে কলঙ্কিত করছে। যারা এভাবে জাতির দুর্দিনেও ত্রাণ চুরি করে এরা জাতীয় গাদ্দার, এরা লুটেরা।

তিনি বলেন, চাল চোরদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিন। ধরা পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই জেল দিন। প্রজ্ঞাপন জারি করুন, জনপ্রতিনিধি থাকার কোনো অধিকার তাদের নেই। চোরের রক্ষকদেরও ছাড় দেওয়া যাবে না। সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত না হওয়ায় দেশ ও জনগণের প্রতি এদের কোন দরদ নেই। নির্দেশ জারি করতে হবে জনপ্রতিনিধি পদ থেকে ওদের চিরতরে বিদায়ের। কঠোর হাতে চোর দমন চাই।

 পীর সাহেব চরমোনাই আরও বলেন, সুষ্ঠুভাবে ত্রাণ বিতরণের জন্য সর্বদলীয় ত্রাণ সমন্বয়ন কমিটি গঠন করে, তাদের মাধ্যমে তালিকা প্রস্তুত করে সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় বিতরণ করলে আশা করা যায় অসহায় ও বঞ্চিত জনগোষ্ঠীর কাছে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছবে।

জাগো প্রহরী/এইচএইচ

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ